নিউজ ফাস্ট

বিচ্ছিন্নতবাদে মদত! ফ্লিপকার্টের বিরুদ্ধে হতে পারে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা


আরও বিপাকে ই-কমার্স সংস্থা ফ্লিপকার্ট (Flipkart)। এবার সংস্থাটির বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ ও বিচ্ছিন্নতাবাদের অভিযোগ দায়ের করার দাবি তুলল কনফেডারেশন অব অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (সিএআইটি)। এই বিষয়ে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাছে অভিযোগ জানিয়েছে তারা।


কয়েকদিন আগেই নাগাল্যান্ডের (Nagaland) রাজধানী কোহিমার এক গ্রাহকের পরিষেবা সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে ফ্লিপকার্ট জানিয়েছিল, ওই রাজ্য দেশের বাইরে। তাই সেখানে পরিষেবা দেওয়া হয় না। সংস্থার এই জবাবে শুরু হয় তুমুল বিতর্ক। ভারতে ব্যবসা করে দেশেরই একটি অঙ্গরাজ্যকে নিয়ে এহেন বয়ানে সরব হন নাগাল্যান্ডের ডিজি থেকে শুরু করে ত্রিপুরার রাজবংশের বর্তমান বংশধর প্রদ্যোৎ বিক্রম মাণিক্য দেববর্মা। হাজার হাজার নেটিজেনদের রোষের মুখেও পড়তে হয় সংস্থাটিকে। ভারতের মতো বিশাল বাজারে ব্যবসা করছে ই-কমার্স সাইট। তাদের ভারতের ইতিহাস-ভূগোল সম্পর্কে ন্যূনতম জ্ঞান থাকা উচিত। নাগাল্যান্ডকে ভারতের বাইরে বলে ফ্লিপকার্ট যে ভুল করেছে তার কোনও ক্ষমা নেই বলেও মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ।বিপদ বুঝে পরিস্থিতি সামাল দিতে ক্ষমা চায় ফ্লিপকার্ট। এই ভুলের জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করে সংস্থাটি। উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে যাতে পরিষেবা দেওয়া যায়, তা চেষ্টা করারও আশ্বাস দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে নাগাল্যান্ডের সঙ্গে যুক্ত হতে পারলে খুব খুশি হবে ফ্লিপকার্ট বলে জানায় সংস্থাটির কর্তৃপক্ষ। যদিও তাতে বিশেষ লাভ হয়নি।


এদিকে, জনপ্রিয় ই-কমার্স সাইটের বিতর্কিত মন্তব্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পর একাংশ নাগা বিচ্ছিন্নতাবাদী সক্রিয় হয়ে ওঠে। নাগাদের অনেকে ফ্লিপকার্টকে বলেন, আমরা এখনও স্বাধীনতা পাইনি। তবে আগেভাগে তা দিয়ে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ। প্রসঙ্গত, কয়েক দশক ধরেই ‘নাগালিম’ বা স্বাধীন নাগা রাষ্ট্র গড়ার দাবিতে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে NSCN জঙ্গিগোষ্ঠী। এহেন পরিস্থিতিতে কনফেডারেশন ফর অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স দাবি করে, যে ভাবে নাগাল্যান্ডকে দেশের বাইরে বলে মন্তব্য করেছে ফ্লিপকার্ট, তাদের এই মনোভাব ও মন্তব্য বিচ্ছিন্নতাবাদ, রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল। তাই সংস্থাটির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা উচিত।

No comments