নিউজ ফাস্ট

“প্রয়োজনে দশ বছরের জন্য বুয়েটে রাজনীতি বন্ধ করা হোক’- আবুল হায়াত







বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের আয়োজনে মতামত প্রকাশ কালে অভিনেতা আবুল হায়াত বুয়েটে ( বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়) প্রয়োজনে আগামী দশ বছর রাজনীতি চর্চা বন্ধ রাখার পক্ষে মতামত দেন।
সম্প্রতি বুয়েটে ঘটে যাওয়া আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ড নিয়ে যখন বুয়েট ক্যাম্পাস উত্তাল- তখন প্রাক্তন ছাত্ররাও সমবেত হন বর্তমান ছাত্রদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে। বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, নাট্যজন আবুল হায়াতও এই প্রতিষ্ঠানের সাবেক ছাত্র এবং অ্যালামনাইয়ের সদস্য।

তিনি এই আয়োজনে অংশ নিয়ে নিজের মত প্রকাশ করেন। বলেন, “আমরা আন্দোলন করতাম। ভিসির কার্যালয়ের সামনে যেতাম। শ্লোগান দিতাম। আমাদের পিতাসুলভ ভিসি বক্তব্য শুনতেন।”

বর্তমানের ভিসির সমালোচনা করে তিনি তার ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং তার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

এরপর ছাত্র রাজনীতি নিয়ে তিনি মত প্রকাশের সময় বলেন, “ছাত্র রাজনীতি খারাপ নয়।  ছাত্র রাজনীতির জন্য আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি, স্বৈরাচার মুক্ত হয়েছি। ছাত্র রাজনীতি অবশ্য্ই ভালো জিনিস। কিন্তু যারা এটাকে পেছন থেকে ব্যবহার করছে তাদের বিরূদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে  । প্রয়োজনে আগামি দশ বছরের জন্য বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা হোক।”
প্রবীন এই শিল্পী আরও উল্লেখ করেন যে, একটি প্রতিষ্ঠানের ছাত্ররা রাজনীতি না করলেই তারা দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন হয় না। ১৯৬৬ সালে এই প্রতিষ্ঠান থেকেই সবচেয়ে বড় দল বের হয়ে বিক্ষোভ প্রকাশ করে। প্রতিটি আন্দোলনে বুয়েটের অবদান অবশ্যই আছে। আমরা দেশ গড়ার জন্য পড়ি এবং কাজ করি। বর্তমান ছাত্রদেরও সেই শান্তিতে পড়ার এবং চলার সুযোগ তৈরি করা জরুরি।

উল্লেখ্য বরেণ্য শিল্পী আবুল হায়াত চট্টগ্রাম কলেজ থেকে তৎকালীণ আইএসসি পাস করে ১৯৬২ সালে বুয়েটে ভর্তি হন। বুয়েটে পড়ার সময়ই শেরেবাংলা হলে থাকতেন। এরপর বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট থেকে ১৯৬৭ সালে পাস করে ১৯৬৮ সালেই ঢাকা ওয়াসার প্রকৌশলী পদে যোগ দেন। পরবর্তী কালে তিনি অভিনেতা হিসেবে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। এখনও তিনি অভিনয় করে যাচ্ছেন।

জনপ্রিয় লেখক হুমায়ুন আহমেদ রচিত প্রচুর নাটকে তিনি অংশ নিয়েছেন। 'মিসির আলি' তার একটি স্মরণীয় চরিত্র। ১৯৬৯ সালে তার প্রথম নাটক ইডিপাস বের হয়েছিল। এর পর একে একে ৫০০ এরও অধিক নাটকে অভিনয় করেছেন।


No comments