নিউজ ফাস্ট

অর্থাভাবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বেটো ওরুরকে



যুক্তরাষ্ট্রের ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন টেক্সাসের সাবেক কংগ্রেসম্যান ও প্রভাবশালী ডেমোক্র্যাটস নেতা বেটো ওরুরকে। নির্বাচনি কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থের সংস্থান করতে না পেরে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শুক্রবার (১ নভেম্বর) লওয়ায় নির্বাচনি কর্মীদের সম্মানে আয়োজিত নৈশভোজের আগে বেটো এই ঘোষণা দেন। খবর সিএনএন।

এর আগে, সমর্থকদের কাছে পাঠানো এক ইমেইলেও তিনি নির্বাচনি দৌড় থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার ব্যাপারটি উল্লেখ করেন। এমনকি টেক্সাসের সিনেট নির্বাচনেও লড়ছেন না তিনি।

এক বিবৃতিতে বেটো বলেন, যদিও মেনে নেওয়া কঠিন। তারপরও এটাই সত্য যে, নির্বাচনি কার্যক্রম সফলভাবে এগিয়ে নেওয়া তার পক্ষে আর সম্ভব নয়। তবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বা মনোনীত হয়েই যে শুধু দেশের কল্যাণে কাজ করা যায়, তা মানেন না তিনি। বরং দল থেকে মনোনীত প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর পক্ষে এক হয়ে কাজ করতে পারাটাই গৌরবের।

এদিকে, বেটো ওরুরকের উপদেষ্টা পরিষদের সূত্রে সিএনএন জানিয়েছে, ২০১৯ সালে মাত্র সাড়ে চার মিলিয়ন ডলার তহবিল যোগাড় করতে পেরেছিলেন তিনি। ওই পরিমাণ তহবিল দিয়ে নির্বাচনি কার্যক্রম পরিচালনা করতে তিনি হিমশিম খাচ্ছিলেন। নির্বাচন যত এগিয়ে আসবে খরচ তত বাড়তে থাকবে। তাই সবদিক ভেবেচিন্তে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বেটো।

অপরদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বেটোর ওই ঘোষণার পর টুইটারে ব্যঙ্গাত্মক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, এ বছরের আগস্ট পর্যন্ত পুরোদমে নির্বাচনি প্রচারণা চালিয়েছিলেন বেটো। কিন্তু তার নিজ শহর এল পাসোয় জনপরিসরে বন্দুকধারীর গুলিতে ২২ জন মারা যাবার পর, তিনি দুই সপ্তাহের জন্য নির্বাচনি কার্যক্রম স্থগিত করেন। ওই বিরতির থেকে ফিরে আসার পর থেকেই প্রচারণার খেই হারিয়ে ফেলেন এই প্রভাবশালী ডেমোক্র্যাট নেতা।

No comments