নিউজ ফাস্ট

‘করোনা সংক্রান্ত তথ্য গোপন করেছিলাম’, স্বীকারোক্তি উহানের মেয়রের

ভয়াবহ করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে ত্রস্ত চীন। এখন পর্যন্ত এই মারণ রোগে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩২। সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে দাবানলের মতো। এহেন পরিস্থিতিতে উঠে এল এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। জানা গেছে, প্রথমদিকে করোনা সংক্রান্ত তথ্য লুকনো হয়েছিল। এই স্বীকারোক্তি দিয়েছেন খোদ উহান শহরের মেয়র।

ভয়াবহ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়েছে হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান শহর থেকে। চীনা সংবাদমাধ্যমে ওই শহরে মেয়র ঝাউ জিয়াংওয়াং বলেন, “আমরা সময়মতো করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত তথ্য সরবরাহ করিনি। ফলে পরিস্থিতি মোকাবিলায় কিছুটা সমস্যা তৈরি হয়েছে।” তবে ভুল স্বীকার করলেও তিনি সাফাই দিয়েছেন, সরকারি নিয়মমতো এহেন পরিস্থিতিতে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে আগাম কোনো তথ্য প্রকাশ করতে পারে না তারা। তবে রোগের মোকাবিলায় সমস্ত সম্ভব চেষ্টা করা হচ্ছে। এবার, মানুষ যদি তাকে দোষারোপ করে তিনি পদত্যাগ করবেন।

বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে, করোনা ভাইরাসের আক্রমণ নিয়ে অনেক তথ্যই লুকিয়েছে চীন। সংবাদমাধ্যমের উপর কড়া সরকারি নিয়ন্ত্রণ থাকায়। সেখানেও সঠিক তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে এই রোগে সরকারি পরিসংখ্যান থেকে অনেক বেশি আক্রান্তের মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে।

এই অবস্থায় গৃহবন্দি দশা চীনের মানুষজনের। উহানকে আগেই গোটা দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়েছে। রাজধানী বেইজিং এবং সাংহাই, জিয়ান, তিয়ানজিন – এই চারটি বড় শহরেও দূরপাল্লার বাস পরিষেবা বন্ধ হয়ে গেছে। চীনের প্রাচীর দর্শন আপাতত বন্ধ। এখন একটাই আতঙ্ক কাজ করছে। ২০০৩ সালে সার্স ভাইরাসের হামলা যে বিপুল সংখ্যক প্রাণ কেড়েছিল চীনে, এবার করোনার থাবায় তারই পুনরাবৃত্তি হবে না তো? চীন ছাড়াও থাইল্যান্ড, নেপাল, হংকং, সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স, জাপান-সহ একাধিক দেশে ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ। ফলে গোটা বিশ্বেই ছড়িয়েছে প্রবল উদ্বেগ।

No comments