নিউজ ফাস্ট

মৃতের সংখ্যা ২৫৯, চীন থেকে আগতদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

আক্রান্তের দিক দিয়ে সার্স ভাইরাস মহামারিকেও ছাড়িয়ে গেছে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস। ২০০৩ সালে সার্স ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিল কমপক্ষে ২৪টি দেশে। প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার আট মাসের মধ্যে এতে বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত হয়েছিলেন ৮১০০ মানুষ। পক্ষান্তরে করোনাভাইরাস দেখা দেয় ডিসেম্বরে। এরপর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১০ হাজার মানুষ। এর বেশির ভাগই চীনা নাগরিক। করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে চীনের বাইরে ২২টি দেশে। এসব দেশে আক্রান্ত হয়েছেন শতাধিক মানুষ।
অন্যদিকে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৫৯। এরা সবাই চীনা নাগরিক। অন্যদিকে সার্স ভাইরাসে মারা গিয়েছিলেন সব মিলিয়ে ৭৭৪ জন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে আরো বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার করোনাভাইরাস মহামারি বিষয়ে বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্য বিষয়ক জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। যুক্তরাষ্ট্রও একই রকম জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে। বিদেশী যেসব নাগরিক চীন ভ্রমণ করেছেন গত দু’সপ্তাহে, তাদের চীনে প্রবেশে নিষেজ্ঞা দেয়ার কথা বলা হয়েছে।

ইউনিভার্সিটি অব হংকং থেকে বলা হয়েছে, সরকারিভাবে আক্রান্তের যে সংখ্যা জানানো হচ্ছে মোট আক্রান্তের সংখ্যা তার চেয়ে অনেক বেশি হতে পারে। গাণিতিক মডেলের ওপর ভিত্তি করে বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, শুধু চীনের উহানেই আক্রান্তের সংখ্যা হতে পারে কমপক্ষে ৭৫ হাজার। এ অবস্থার প্রেক্ষিতে উহান থেকে বিদেশী নাগরিকদের উদ্ধার তৎপরতা চলছে। দু’সপ্তাহের জন্য উদ্ধারকৃত নিজ নিজ নাগরিকদের বিচ্ছিন্ন করে রাখার কথা বলেছে বৃটেন, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর ও নিউজিল্যান্ড। এক্ষেত্রে মূল ভূখন্ড থেকে ২০০০ কিলোমিটার দূরে ক্রিসমাস আইল্যান্ডে নিজেদের নাগরিকদের রাখার কথা বলেছে অস্ট্রেলিয়া। এই দ্বীপটিতে বন্দি রাখা হয় অবৈধ অভিবাসীদের। চীন থেকে যাতে কোনো ভ্রমণকারী প্রবেশ করতে না পারেন সে জন্য নিজেদের সব সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে সিঙ্গাপুর। রোমে চীনা দুই পর্যটকের দেহে করোনাভাইরাস সনাক্ত করার পর ইতালিতে ৬ মাসের জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। ২রা মার্চ পর্যন্ত চীন থেকে সব রকম মানুষের প্রবেশ স্থগিত করেছে মঙ্গোলিয়া। এ দেশটি চীনে তাদের নাগরিকদের ভ্রমণেও নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। চীনের সঙ্গে ৪৩০০ কিলোমিটার সীমান্ত বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাশিয়া। চীনের সঙ্গে সব রকম ফ্লাইট বন্ধ করে দিয়েছে ইসরাইল। চীনে এবং চীন থেকে সব রকম ফ্লাইট স্থগিত করেছে উত্তর কোরিয়া। ভ্রমণে নতুন সতর্কতা ঘোষণা করেছে গুয়াতেমালা।

No comments