নিউজ ফাস্ট

বিনিয়োগকারীদের প্রযুক্তিনির্ভর বিশ্বমানের সেবা দেবে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ



 

বিনিয়োগকারীদের প্রযুক্তিনির্ভর বিশ্বমানের সেবা দেবে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজের ট্রেড এক্সপ্রেস নামে নতুন অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (ওএমএস)। ট্রেড এক্সপ্রেস স্বয়ংক্রিয় পদ্বতিতে শেয়ার লেনদেন সুবিধাসহ সব ধরনের সেবা পৌঁছে দেবে গ্রাহকদের দোরগোড়ায়। বর্তমানে স্টক এক্সচেঞ্জের কাছ থেকে অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (ওএমএস) ব্রোকারেজ পর্যায়ে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। এটি বাস্তবায়িত হলে পুঁজিবাজারের লেনদেন পৌঁছে যাবে যেকোনো স্থানের যেকোনো শ্রেণী-পেশার বিনিয়োগকারীর হাতের মুঠোয়।


গত ৯ অক্টোবর লংকাবাংলা সিকিউরিটিজের তৈরি করা ওএমএস ট্রেড এক্সপ্রেস নিয়ে আয়োজিত এক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় এর বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য এবং ব্যবহারিক বিভিন্ন দিক তুলে ধরা হয়। অংশগ্রহণকারীরা তাদের প্রাত্যহিক পেশাগত অভিজ্ঞতার আলোকে সফটওয়্যারটির বিভিন্ন দিক সম্পর্কে ভেন্ডর প্রতিষ্ঠান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের কর্মীদের কাছ থেকে সম্যক ধারণা নিয়েছেন।


অনুষ্ঠানে লংকাবাংলা গ্রুপের ক্যাপিটাল মার্কেট অপারেশনসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আমরা যখন যাত্রা শুরু করি সেই সময়ের তুলনায় বর্তমানে প্রযুক্তির ক্ষেত্রে অনেক পরিবর্তন হয়েছে। এজন্য গত কয়েক বছরে আমরাদের প্রযুক্তিগত সক্ষমতা বাড়াতে হয়েছে। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বর্তমান শীর্ষ কর্মকর্তারা দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে দেশ-বিদেশের বিনোয়োগকারীদের প্রযুক্তিনির্ভর সেবার মাধ্যমে বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে সংযুক্ত করার প্রয়াস চালিয়ে আসছেন।

এরই ধারাবারিকতায় এবং গ্রাহকদের চাওয়া-পাওয়াকে প্রাধান্য দিয়ে সর্বোপরি একটি স্বচ্ছ, নিরবচ্ছিন্ন ও গতিশীল পুঁজিবাজার গঠনে আমরা আগেও ছিলাম, এখনো আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকব।


লংকাবাংলা সিকিউরিটিজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) খন্দকার সাফ্ফাত রেজা তার বক্তব্যে বিএসইসির এ যুগোপযোগী ও বলিষ্ঠ পদক্ষেপকে আরো শক্তিশালী করার সহযোদ্ধা হিসেবে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) নবনিযুক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও তার তথ্যপ্রযুক্তি দলকে তাদের নিরলস সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে পুরো ডিএসই প্রশাসনকে সাধুবাদ জানান। তিনি বলেন, বৈশ্বিক প্রযুক্তি বিপ্লব এখন দেশের পুঁজিবাজারের বহুমুখী সেবায় সম্পৃক্ত। আশা করা হচ্ছে নতুন এ প্রযুক্তির সংযোজন বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের টেকসই বুনিয়াদ গঠনের মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিকে নিয়ে যাবে নতুন এক উচ্চতায়। স্বপ্ন বাস্তবায়ন এখন শুধু সময়ের অপেক্ষায়।



কোন মন্তব্য নেই