নিউজ ফাস্ট

নূপুর-ক্ষতের মধ্যেই আমিরাতের প্রেসিডেন্টের সাথে তীব্র আলিঙ্গন মোদির


জি-৭ সম্মেলন শেষে বুধবার বিকেলে জার্মানি থেকে কয়েক ঘণ্টার সফরে সংযুক্ত আরব আমিরাত গিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আবুধাবি বিমানবন্দরেই সে দেশের প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের সাথে গভীর আলিঙ্গনে আবদ্ধ হন তিনি।


মহানবী হজরত মুহাম্মদ সা:-কে নিয়ে বিজেপির বরখাস্ত হওয়া নেত্রী নূপুর শর্মার বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে কালো মেঘ তৈরি হয়েছে পশ্চিম এশিয়ার মুসলিম দেশগুলোতে। প্রায় ২০টি দেশ ও প্রতিষ্ঠান কড়া নিন্দা জানিয়েছে এ ঘটনার। সৌদি আরব, কাতারের মতো অনেক দেশ সেখানকার ভারতীয় দূতকে ডেকে পাঠিয়ে এর প্রতিবাদ জানিয়েছে।


তবে প্রথম থেকেই আবুধাবিকে তুলনামূলক নরম থাকতে দেখা গিয়েছিল। তারা ঘটনার নিন্দা করেছিল ঠিকই, কিন্তু ভারতীয় দূতকে ডেকে পাঠানো হয়নি। কূটনৈতিক শিবিরের দাবি, বুধবারের আলিঙ্গনের পরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিষয়ে অনেকটাই চিন্তামুক্ত হলো দিল্লি।


সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা আল নাহিয়ান গত মাসে মারা যান। তিনি ২০০৪ সাল থেকে দায়িত্ব পালন করছিলেন। তার মৃত্যুর পর শেখ মুহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান দেশটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন।


বুধবার মোদি আবুধাবি পৌঁছে টুইট করেন, ‘আমার ভাই, শেখ মুহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের বিশেষ সৌজন্যে আমি মুগ্ধ। তিনি বিমানবন্দরে এসেছিলেন আমাকে অভ্যর্থনা জানাতে। তাকে জানাই আমার কৃতজ্ঞতা।’


ভারতের পররাষ্ট্র সচিব বিনয় কোয়াত্রা বলেছেন, ‘নিরাপত্তা, শিক্ষা, বিনিয়োগের মতো বিষয়গুলো নিয়ে ভারত ও সংযুক্ত আরব আমিরাত আলোচনা চালাচ্ছে। এগুলোকে আরো গতি দিতে প্রধানমন্ত্রীর এই সফর।’


ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘ভারত-সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে সামগ্রিক কৌশলগত অংশীদারিত্বের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেছেন দুই নেতা। গত মে মাসেই দু’দেশের মধ্যে স্বাক্ষর হয়েছে সামগ্রিক অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব চুক্তি।’

কোন মন্তব্য নেই