নিউজ ফাস্ট

ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা ফিলিস্তিনের

ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করেছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ। এরমধ্যে রয়েছে ফিলিস্তিনিদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নিরাপত্তা সম্পর্কগুলোও। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ঘোষিত মিডল ইস্ট শান্তি পরিকল্পনার প্রতিবাদেই এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফিলিস্তিন। বিষয়টি নিশ্চিত করে গত শনিবার এক ঘোষণা দেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
ঘোষণার সময় আব্বাস মিশরের রাজধানী কায়রোতে অবস্থান করছিলেন। সেখানে বর্তমানে আরব দেশগুলোর জোট আরব লীগের সম্মেলন চলছে। ট্রাম্প ঘোষিত পরিকল্পনা অনুযায়ী, আগের দুই দেশ সমাধান বাতিল করে বর্তমানে সম্পূর্ণ ইসরায়েলি নিয়ন্ত্রণে পুরো অঞ্চলের নিরাপত্তার কথা বলা আছে।
এর প্রতিবাদেই যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে ফিলিস্তিন। মাহমুদ আব্বাস বলেন, আমরা বিষয়টি ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। আমরা বলেছি যে, তাদের সঙ্গে ও তাদের মিত্র যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক থাকবে না। এমনকি নিরাপত্তা ইস্যুতেও না। তবে তার এই বক্তব্যের কোনো জবাব এখনো ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ দেয়নি।
ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের মধ্যে নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। দখলকৃত পশ্চিমতীরে দুই পক্ষের নিরাপত্তা বাহিনী একইসঙ্গে নজরদারি রাখে। এই অঞ্চলটি এখন ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ফিলিস্তিনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএর সঙ্গেও সহযোগিতামূলক সম্পর্কের চুক্তি রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রকে নানা ক্ষেত্রে বয়কট করলেও সিআইএর সঙ্গে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখে ফিলিস্তিন।
বক্তব্যে আব্বাস আরো জানান, তিনি টেলিফোনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলেছেন। এতে তিনি সরাসরি মার্কিন পরিকল্পনা প্রত্যাখ্যান করেছেন বলে ট্রাম্পকে জানিয়েছেন। এটা পড়েও দেখতে চান না বলে ট্রাম্পকে এর কপি পাঠাতে নিষেধ করেন আব্বাস। তিনি আরো বলেন, আমি চাই না মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলুক যে আব্বাসের সঙ্গে বোঝাপড়া চলছে।
এদিকে ট্রাম্পের ডিল অব দ্যা সেঞ্চুরি বা মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি পরিকল্পনা প্রতিহত করার আহ্বান জানিয়েছে রাশিয়ার সবচেয়ে বড় মুসলিম সংগঠন। রুশ মুফতি পরিষদের পরিচালক নাফিকুল্লাহ আশিরোভ শনিবার মস্কোয় এক বক্তব্যে এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ও ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু তাদের অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক সুবিধা পাওয়ার লক্ষ্যে তড়িঘড়ি করে এই পরিকল্পনা ঘোষণা করেছেন। রুশ মুফতি পরিষদের প্রধান আরো বলেন, ফিলিস্তিনি জাতি কখনো তাদের স্বার্থবিরোধী ও ইসলাম-বিদ্বেষী এ পরিকল্পনা মেনে নেবে না।
উল্লেখ্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মঙ্গলবার ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যকার সংঘাত নিরসনে ডিল অব দ্যা সেঞ্চুরি পরিকল্পনা প্রকাশ করেন। তবে এতে জেরুজালেম শহরকে ইসরায়েলের অবিভক্ত রাজধানী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষ এবং ইরানপন্থি প্রতিরোধ আন্দোলনগুলো এ পরিকল্পনা প্রত্যাখ্যান করেছেন।

No comments